আড়াইহাজারে জনদুর্ভোগের কারণ দুইটি বেইলী ব্রীজ

আড়াইহাজারে জনদুর্ভোগের কারণ দুইটি বেইলী ব্রীজ

 

হারাধন চন্দ্র দে, আড়াইহাজার প্রতিনিধি, প্রেসবাংলা২৪.কম; নারায়নগঞ্জের আড়াইহাজারের জনদুর্ভোগের প্রধান কারন হয়ে দাড়িয়েছে আড়াইহাজার দক্ষিণপাড়া ও রামচন্দ্রদীর দুটি বেইলী ব্রীজ।

 

দীর্ঘ দিনের পুরুনো ও সরু এ ব্রীজ দুটিই এখন আড়াইহাজারে তীব্র যানজটে মূল কারন হয়ে দাড়িয়েছে। যার জন্য নিত্যদিন এ ব্রীজ দুটির সামনে পিছনে কয়েক কিলোমিটার যানজট লেগে থাকে। নিত্যদিনে যানজটে অতিষ্ট সাধারন মানুষ। ঘন্টার পর ঘন্টা এ ব্রীজের উভয়দিকে বসে থাকতে হয় যাত্রীদের। ঢাকা-গোপালদী.ঢাকা-বিশনন্দী মানিকপুর ফেড়িঘাট পর্যন্ত বাসরোড রয়েছে। এছাড়া ব্রাহ্মনবাড়িয়া ও কুমিল্লা জেলার ১০টি উপজেলার সাথে এ রোডটি সংযুক্ত রয়েছে। উপজেলার আরো ১৫টির মতো সংযোগ সড়ক দিয়ে ভারি যানবাহন সহ সকল প্রকার যাত্রীবাহি যাপনবাহন চলাচল করে এ রোডটি দিয়ে।

 

এ রোড়ে আড়াইহাজার উপজেলা সদরে দক্ষিণপাড়া এলাকায় জামাইকাটা খালের উপর স্বাধীনতা পরবর্তীতে ৩০মিটারের একটি ঢালাই ব্রীজ ছিল। ১৯৯০ সালে গোপালদী বাজারে রড বোঝাই ট্রাক যাওয়ার পথে ব্রীজটি ভেঙ্গে খালে পড়ে যায়। তার পর এখানে একটি ষ্টিলের বেইলী ব্রীজ নির্মাণ করে কর্তৃপক্ষ। যা দিয়ে ১৯৯০ সাল থেকে এখন পর্যন্ত যানবাহন চলাচল করে আসছে। বিভিন্ন সময়ে এ ব্রীজের নাটবল্টু খুলে নিয়ে যায় চোরের দল। বিভিন্নস্থানে ষ্টিলের পাটাতন ও রেলিং ভেঙ্গে গিয়ে যান চলাচলের অনুপযোগী হয়ে পড়ে। অন্যদিকে ১৯৯৪ সালে রামচন্দ্রদীতে মেঘনার শাথা নদীর উপর তৎকালিন সরকার ১০০ মিটার দৈর্ঘের একটি ষ্টিলের বেইলী ব্রীজ নির্মাণ করে। যা দিয়ে বিশনন্দী ইউনিয়নের সাথে আড়াইহাজার উপজেলার এ অঞ্চলের জনগণের যোগাযোগ স্থাপন করা হয়। ২০০৯ সালে আওয়ামীলীগ ক্ষমতা গ্রহনের পর উপজেলার বিশনন্দী ইউনিয়নের মানিকপুর মেঘনা নদীতে ফেড়ি চালু করা হয়। এ ফেড়ি চালুর কারনে ব্রাহ্মনবাড়িয়া ও কুমিল্লা জেলার সাথে যানবাহন চলাচল শুরু হয়। সে থেকে এ সড়কটি একটি ব্যস্ত সড়কে পরিণত হয়।

 

দেশের পর্বাঞ্চলের হাজারো যান বাহন প্রতিদিন এ সড়কটি ব্যবহার করে ঢাকা ও নারায়ণগঞ্জ সহ দেশের বিভিন্ন অঞ্চলের সাথে যান চলাচল করে থাকে। এ সেতুটির মাঝ খান দিয়ে নাট-বল্টু উঠে গিয়ে অনেকটা নিচে নেমে গেছে। যানবাহন উঠলেই থরথর করে কাপতে থাকে পুরো সেতু। যে কোন সময় এই স্থানে দুর্ঘটনা ঘটতে পারে বলে এলাকাবাসী জানায়। তাছাড়াও সেতুটির অনেক স্থান দিয়ে সাইড রেলিং নেই। সাইড রেলিং না থাকায় গত ৬ মাসে অর্ধশতাধিকের বেশী যাত্রী নদীতে পড়ে মারাত্মক আহত হয়েছে। এ সড়ক দিয়ে বিআরটিসি বড় বাস চলাচল করে। একটি বড় বাস ব্রীজে উঠলেই সেটি দীর্ঘক্ষণ ব্রীজে আটকে থাকতে হয়।

 

আড়াইহাজার পৌরসভা সদরে ৬/৭টি সংযোগ সড়কে ড্রেন ও রাস্তার কাজ চলমান থাকায় এ রাস্তাগুলোর যান চলাচল বন্ধ হয়ে যায়। এ কারনে সকল যানবাহন প্রধান সড়ক আড়াইহাজার গোপালদী ও আড়াইহাজার বিশনন্দী সড়কটি ব্যবহার করে যানবাহন চলাচল করছে। সে কারনে কৃষ্ণপুরা পায়রা চত্ত্বর থেকে আড়াইহাজার বাজার,আড়াইহাজার পৌরসভা,সরকারী সফর আলী কলেজ থেকে ফতেপুর ইউনিয়নের বগাদী পর্যন্ত প্রায় ৫ কিলোমিটার সড়কে ও রামচন্দ্রী বেইলী ব্রীজের দুইপাশে মানিকপুর ফেড়িঘাট থেকে জালাকান্দি মশারির মিল পর্যন্ত ৬ কিলোমিটার যানজট লেগে থাকে। বর্তমানে এ রোডটি দিয়ে প্রতিদিন হাজার হাজার ভারি যানবাহন সহ সকল প্রকার যানবাহন চলাচল করে থাকে। কিন্তু হাজার হাজার চলমান যানবাহনের চাপের কারনে এ সরু ও লক্করঝক্কর ব্রীজ দুটিই  আড়াইহাজারের এখন মহা সমস্যা হয়ে দেখা দিয়েছে।

 

কর্মচঞ্চল আড়াইহাজারকে স্থবির করে দিয়েছে এ ব্রীজ দুটি। এতই সরু যে একটি ট্রাক বা বাস ব্রীজে উঠলে একটি মানুষ হেটে যাওয়ার সুযোগ থাকে না। ব্রীজের উভয় দিকে মাইলের পর মাইল তীব্র যানজট লেগে থাকে। তার উপর কিছু যানবাহন আগে যাওয়ার প্রতিযোগিতার কারনে পুরো সড়কে মহাবিশৃংখলার সৃষ্টি হয়।

 

এ সড়কটি দিয়ে আড়াইহাজার উপজেলা, ব্রাহ্মনবাড়িয়া ও কুমিল্লা জেলার বিভিন্ন উপজেলা থেকে প্রতিদিন মূমূর্ষ রোগী নিয়ে শতাধিক এ্যাম্বুল্যান্স চলাচল করে। যানজটে ঘন্টার পর ঘন্টা আটকে থাকা মূমূর্ষ রোগীদের চিৎকারে মানুষের হৃদয় বিদীর্ণ হলেও যানজট থেকে বাাঁচার কোন উপায় থাকেনা। এছাড়াও যানজটের কারনে মানুষ তাদের কর্মস্থলে ও ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে যেমন যথাসময়ে যেতে পারেনা তেমনি সরকারী বহু কাজই যথাসময়ে করা সম্ভব হচ্ছে না। সাধারন মানুষ আক্ষেপ করে জানান, এ পর্যন্ত আড়াইহাজার উপজেলায় রাস্তাঘাটসহ ব্যাপক উন্নয়ন মূলক কাজ হলেও কি কারনে এ বেইলী ব্রীজ দুটি ভেঙ্গে সড়কের উপযোগী করে ব্রীজদুটি নির্মাণ করা হচ্ছেনা তা তাদের জানা নাই।

 

তবে উপজেলা নির্বাহী অফিসার সোহাগ হোসেন জানান,বেইলী ব্রীজ দুটিতে তীব্র যানজটের কারনে উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ হতে ব্রীজ দুটিতে সার্বক্ষনিক আনসার সদস্য মোতায়েন করা হয়েছে। খুব দ্রুতই এ ব্রীজ দুটি পূণনির্মাণ করা হবে বলে জানান।

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

WP2Social Auto Publish Powered By : XYZScripts.com