আইভীর হ্যাট্রিক বিজয়, নগরীতে উল্লাস

নিজস্ব প্রতিবেদক, প্রেসবাংলা২৪.কম: কোন ধরনের বিশৃখলা অপ্রীতিকর ঘটনা ছাড়াই এবং শান্তিপূণ ভাবে বহুল আলোচিত নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশন (নাসিক) নির্বাচন সম্পন্ন হয়েছে। এই নির্বাচনে আওয়ামী লীগের মনোনীত প্রার্থী ডা: সেলিনা হায়াৎ আইভীর দাপুটে বিজয়ী হয়েছেন। বিপুল ভোটের ব্যবধানে ৩য় বারের মত নাসিকের মেয়র হিসাবে নির্বাচিত হয়েছে। স্বতস্ত্র প্রার্থী বিএনপি নেতা অ্যাডভোকেট তৈমূর আলম খন্দকারকে পরাস্থ করে বিজয়ের মালা আইভীর গলায় পড়েছে। আইভীর বিজয়ে পুরো নগরীতে আইভী পন্থি লোকজন উল্লাসিত। বিভিন্ন এলাকায় দফায় দফায় নৌকা-আইভীর বিজয়ের বিজয় মিছিল বের করেন। তবে আইভী সকালবেলা ভোট দিয়ে জনগণের রায়ের বিজয় নিশ্চিত হবেন বলে প্রত্যাশা করে হাসি মুখে প্রতিটি ভোট কেন্দ্র পরিদশন করেন। জনগণের ভোটে বিপুল ভোটে বিজয়ী হয়ে শেষ হাসিটা হাসলেন আইভী।

নির্বাচনে ১৯২টি কেন্দ্রের মধ্যে সবগুলো কেন্দ্রের ফলাফলে আওয়ামীলীগের মনোনীত প্রার্থী ডা: সেলিনা হায়াত আইভী নৌকা প্রতীকে পেয়েছেন ১ লাখ ৬১ হাজার ২৭৩ ভোট। আর তার নিকটতম প্রতিদ্বন্ধি স্বতন্ত্র প্রার্থী বিএনপি নেতা এড. তৈমুর আলম খন্দকার হাতি প্রতীকে পেয়েছেন ৯২ হাজার ১৭১ ভোট।

রোববার (১৬ জানুয়ারি) রাতে নাসিক নির্বাচনের রিটার্নিং অফিসারের কাযালয় থেকে ফলাফল ঘোষণায় করেন রিটার্নিং অফিসার মাহফুজা আক্তার। তিনি আইভীকে বেসরকারী ভাবে বিজয় ঘোষণা করেন।

এদিকে বড় ধরনের কোন অপ্রীতিকর ঘটনা ছাড়াই সুষ্ঠুভাবে ভোট গ্রহণ হয়। সকাল ৮টা থেকে বিকাল ৪টা পর্যন্ত একটানা ভোটগ্রহণ চলে। এর পর ঘোষণা হতে থাকে ফলাফল। নির্বাচনে ৫০ ভাগ ভোট কাস্ট হয়েছে বলে প্রাথমিকভাবে জানানো হয়েছে নির্বাচন কমিশন। মোট ভোটার সংখ্যা ছিল ৫ লাখ ১৭ হাজার ৫৭ ভোট। এদিকে নির্বাচনে মেয়রসহ ৩৭টি পদে প্রতিদ্বন্ধিতা করছেন ১৮৯ প্রার্থী। এর মধ্যে মেয়র পদে ৭জন, ২৭টি ওয়ার্ডে ১৪৮ জন সাধারণ কাউন্সিলর এবং ৯টি সংরক্ষিত নারী আসনে ৩৪ প্রার্থী প্রতিদ্বন্ধিতা করছেন। মোট ৫ লাখ ১৭ হাজার ৩৫৭ জন ভোটার ১৯২টি ভোটকেন্দ্রের ১৩৯৬টি ভোটকক্ষ। এর মধ্যে পুরুষ ভোটার পুরুষ ভোটার ২ লাখ ৫৯ হাজার ৮৩৪ এবং নারী ভোটার ২ লাখ ৫৭ হাজার ৫১৯। তৃতীয় লিঙ্গের ভোটার রয়েছেন ৪ জন। আর নির্বাচনে আওয়ামী লীগের আওয়ামী লীগ মনোনয়ন নিয়ে নৌকা প্রতীকে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেছেন আলী আহাম্মদ চুনকা কন্যা ডা. সেলিনা হায়াত আইভী। তার একমাত্র প্রধান প্রতিদ্বন্দ্বী স্বতন্ত্র প্রার্থী বিএনপি নেতা হাতি প্রতীকের অ্যাডভোকেট তৈমুর আলম খন্দকার। অবশ্য মেয়র পদে আরও ৫ প্রার্থী এই নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। তারা হলেন খেলাফত মজলিসের এবিএম সিরাজুল মামুন (দেয়ালঘড়ি), ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের মাওলানা মো. মাছুম বিল্লাহ (হাতপাখা), বাংলাদেশ খেলাফত আন্দোলনের মো. জসীম উদ্দিন (বটগাছ), বাংলাদেশ কল্যাণ পাটির মো. রাশেদ ফেরদৌস (হাতঘড়ি) এবং স্বতন্ত্র প্রার্থী কামরুল ইসলাম (ঘোড়া)।

নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে নারায়ণগঞ্জে এসে নির্বাচন কমিশনার মাহবুব তালুকদার বলেন, এটি আমার চেয়ে সাংবাদিকরা ভালো জানেন। আমি তো একদিন এসেছি, গণমাধ্যমকর্মীরা দীর্ঘদিন ধরে এটা দেখছেন, পর্যবেক্ষণ করছেন। কোনো ধরনের সমস্যা থাকলে আপনারা (মিডিয়া) জানান। ভোট শেষ না হওয়া পর্যন্ত এ বিষয়ে কিছু জানানো যাচ্ছে না। এ ব্যাপারে বলা যাবে ভোটের সময় পার হাওয়ার পর। ভোট যত বেশি কাস্ট হবে আমি তত খুশি। আমাদের বিদায়লগ্নে একটি ভালো নির্বাচন দেখতে চাই। যার জন্য আমি আজ এখানে এসেছি। আমি এখন যদি কিছু বলি সেটা খন্ডচিত্র হবে।

এসময় তিনি প্রার্থীদের এজেন্টদের কাছে মাহবুব তালুকদার তাদের কোনো ধরনের অসুবিধা হচ্ছে কি না এ বিষয়ে বলেন, ইভিএমসহ ভোটের বর্তমান পরিস্থিতি নিয়ে কোনো অভিযোগ নেই। পরে প্রিসাইডিং অফিসারের কাছেও ইভিএমে সমস্যা আছে কি না, কারো কোনো অভিযোগ আছে কি না এবং ভোট কেমন হচ্ছে, এসব বিষয়ে জানতে চান এ নির্বাচন কমিশনার। বিপুল ভোটে বিজয়ী হওয়ার পর মুখভরা হাসি নিয়ে ডা: সেলিনা হায়াত আইভী দলের নেতাকমীদের সামনে হাজির হন। সকলের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন।

তিনি বলেন, নারায়ণগঞ্জের জনগনের রায় হয়েছে। জনগনের বিজয় হয়েছে। নারায়ণগঞ্জবাসী প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করে বলেন, এটা আমার নেত্রী প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আমাকে সম্মানিত করে নৌকা তুলে দিয়েছেন। আমি আমার নেত্রীর সম্মান রাখতে পেরেছি।

তিনি আরও বলেন, আমি জনগনের কাছে গিয়েছিলাম, সবাই আমাকে ভোট দেয়ার আশ্বস্ত করেছিলেন। আমি জনগনের ভাল বাসা পেয়ে আমি বিপুল ভোটে বিজয়ী হয়েছি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

WP2Social Auto Publish Powered By : XYZScripts.com