পূজার শুভেচ্ছা নিয়ে শহস্রাধিক পরিবারের পাশে টিম খোরশেদ

নিজস্ব প্রতিবেদক, প্রেসবাংলা২৪.কম: শারদীয় দূর্গা উৎসবকে কেন্দ্র করে নিম্নবিত্ত হিন্দু সম্প্রদায়ের ঘরে ঘরে উপহার নিয়ে তাদের সাথে পূজার শুভেচ্ছা বিনিময় করেছেন কাউন্সিলর মাকছুদুল আলম খন্দকার খোরশেদ।

গত শুক্রবার (৮ অক্টোবর) থেকে নিজস্ব উদ্যোগে আজ বুধবার (১৩ অক্টোবর) পর্যন্ত  রবি দাস পাড়া, রমাসদাইর, গলাচিপা, জামতলা, আমলাপাড়া, কুমুদিনী সহ নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনের ১৩ নং ওয়ার্ডের বিভিন্ন এলাকায় ঘুরে ঘুরে এ উপহার বিতরণ করেছেন খোরশেদ। উপহার সামগ্রীর মধ্যে থাকছে শাড়ী, লুংগী, থ্রপিস, সেমাই ও মাস্ক। ১৩ নং ওয়ার্ডের মোট সহস্রাধিক  পরিবারের মাঝে এ উপহার সামগ্রী পৌছে দেন তিনি।

পূজার উপহার পেয়ে জামতলা এলাকার নারায়ণ চন্দ্র দাস জানান, কাউন্সিলর খোরশেদকে সব সময় আমরা কাছে পাই। ঈদ পূজা কিংবা যেকোন উৎসব তিনি আমাদের সাথে মিলেমিশে পালন করেন। করোনাকালে খাদ্য সামগ্রী পেয়েছি, করোনায় মৃতদের সৎকার করেছেন উনি। এবারো সব সময়ের মত পূজায় তিনি উপহার নিয়ে হাজির হয়েছেন।

চাষাড়া রবিদাস পাড়া নিবাসী বাচ্চু রবি দাস ও দাসিয়া রাণী দাস উপহার পেয়ে কৃতজ্ঞতা জানিয়ে খোরশেদকে বলেন, আপনার মত করে কেউ আর খোঁজ খবর নেয়না আমাদের। সৃষ্টিকর্তার কাছে প্রার্থনা করি যুগে যুগে প্রতি ওয়ার্ডে এমন একজন খোরশেদ দিন।

কাউন্সিলর খোরশেদ জানান, সবাইকে শারদীয় শুভেচ্ছা জানাই। আমি যেহেতু জনপ্রতিনিধি তাই আমার কাছে দল মত ধর্ম বিবেচ্য বিষয় নয়। আমি সকল উৎসবে ওয়ার্ডবাসীর পাশে থাকতে চেষ্টা করি। এবারো চেষ্টা করছি নিম্ন আয়ের সনাতনী ভাই বোনদের কাছে আমার সামান্য উপহার পৌছে দিতে। আমরা চাই এই উৎসব সকলের কাছে আনন্দের হোক। যেন কারো অসচেতনায় বেদনার কারণ না হয়। আর তাই আমাদের স্বাস্থ্যবিধি অবশ্যই মেনে চলতে হবে।শারদীয় দূর্গা উৎসবকে কেন্দ্র করে নিম্নবিত্ত হিন্দু সম্প্রদায়ের ঘরে ঘরে উপহার নিয়ে তাদের সাথে পূজার শুভেচ্ছা বিনিময় করেছেন কাউন্সিলর মাকছুদুল আলম খন্দকার খোরশেদ।

গত শুক্রবার (৮ অক্টোবর) থেকে নিজস্ব উদ্যোগে আজ বুধবার (১৩ অক্টোবর) পর্যন্ত  রবি দাস পাড়া, রমাসদাইর, গলাচিপা, জামতলা, আমলাপাড়া, কুমুদিনী সহ নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনের ১৩ নং ওয়ার্ডের বিভিন্ন এলাকায় ঘুরে ঘুরে এ উপহার বিতরণ করেছেন খোরশেদ। উপহার সামগ্রীর মধ্যে থাকছে শাড়ী, লুংগী, থ্রপিস, সেমাই ও মাস্ক। ১৩ নং ওয়ার্ডের মোট সহস্রাধিক  পরিবারের মাঝে এ উপহার সামগ্রী পৌছে দেন তিনি।

পূজার উপহার পেয়ে জামতলা এলাকার নারায়ণ চন্দ্র দাস জানান, কাউন্সিলর খোরশেদকে সব সময় আমরা কাছে পাই। ঈদ পূজা কিংবা যেকোন উৎসব তিনি আমাদের সাথে মিলেমিশে পালন করেন। করোনাকালে খাদ্য সামগ্রী পেয়েছি, করোনায় মৃতদের সৎকার করেছেন উনি। এবারো সব সময়ের মত পূজায় তিনি উপহার নিয়ে হাজির হয়েছেন।

চাষাড়া রবিদাস পাড়া নিবাসী বাচ্চু রবি দাস ও দাসিয়া রাণী দাস উপহার পেয়ে কৃতজ্ঞতা জানিয়ে খোরশেদকে বলেন, আপনার মত করে কেউ আর খোঁজ খবর নেয়না আমাদের। সৃষ্টিকর্তার কাছে প্রার্থনা করি যুগে যুগে প্রতি ওয়ার্ডে এমন একজন খোরশেদ দিন।

কাউন্সিলর খোরশেদ জানান, সবাইকে শারদীয় শুভেচ্ছা জানাই। আমি যেহেতু জনপ্রতিনিধি তাই আমার কাছে দল মত ধর্ম বিবেচ্য বিষয় নয়। আমি সকল উৎসবে ওয়ার্ডবাসীর পাশে থাকতে চেষ্টা করি। এবারো চেষ্টা করছি নিম্ন আয়ের সনাতনী ভাই বোনদের কাছে আমার সামান্য উপহার পৌছে দিতে। আমরা চাই এই উৎসব সকলের কাছে আনন্দের হোক। যেন কারো অসচেতনায় বেদনার কারণ না হয়। আর তাই আমাদের স্বাস্থ্যবিধি অবশ্যই মেনে চলতে হবে।

0 0 vote
Article Rating
Subscribe
Notify of
guest
0 Comments
Inline Feedbacks
View all comments
0
Would love your thoughts, please comment.x
()
x