শিক্ষকতার ৩০ বছর পূর্তি ইবি শিক্ষক সাইফুল ইসলাম সিদ্দিকির

শিক্ষকতার ৩০ বছর পূর্তি ইবি শিক্ষক সাইফুল ইসলাম সিদ্দিকির

 নাছির উদ্দিন আবির, প্রেসবাংলা২৪.কম: শিক্ষকতা জীবনের ৩০ বছর পূর্ণ করেছেন ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক, খ্যাতনামা লেখক ও গবেষক প্রফেসর আবুল বাশার মোহাম্মদ সাইফুল ইসলাম সিদ্দিকী। ২৭ মার্চ (শনিবার) তার শিক্ষকতার পথ চলার ৩০ বছর পূর্ণ হয়।

১৯৯১ সালের ২৭ মার্চে আল কুরআন ও উলুমুল কুরআন বিভাগে প্রভাষক পদে যোগদান করেন । শিক্ষকতার পাশাপাশি গবেষণা ও লেখালেখিতে নিজেকে ব্যাস্ত রেখেছেন ।

ড. আ. ব. ম. সাইফুল ইসলাম সিদ্দীকী ষাটের দশকে জামালপুর জেলার ইসলামপুর উপজেলার ঢেংগার গড় গ্রামের এক সম্ভ্রান্ত মুসলিম পরিবারে জন্ম গ্রহণ করেন। আলহাজ্জ মুরশাদুজ্জামান সরদার ও মরহুমা জামিলা খাতুনের দ্বিতীয় পুত্র তিনি। মাদ্রাসা-ই-আলীয়া ঢাকা হতে প্রথম শ্রেণীতে প্রথম স্থান অধিকার করে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের আরবী বিভাগ হতে প্রথম শ্রেণীসহ বিএ (অনার্স), এমএ ডবল (আরবী ও ইসলামিক স্টাডিজ) এবং ১৯৯৯ সালে ইউজিসি ফেলোশীপসহ আরবী প্রবাদ সাহিত্যের উপর পিএইচ. ডি. ডিগ্রী লাভ করেন। ১৯৮৯ সালে ইসলামিক ফাউন্ডেশন বাংলাদেশ ঢাকার সহকারী পরিচালক এবং ১৯৯০ সালে বাংলাদেশ মিলিটারি একাডেমী ভাটিয়ারী চট্টগ্রামে সেনাবাহিনীর ক্যাপ্টেন পদ মর্যাদায় ইনস্ট্রাক্টর (আরবী) হিসাবে যোগদান করেন। ১৯৯১ সালে তিনি  ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় কুষ্টিয়ায় আল-কুরআন ওয়া উলুমুল কুরআন বিভাগে প্রভাষক, ১৯৯৪ সালে আল-কুরআন এণ্ড ইসলামিক স্টাডিজ বিভাগে সহকারী অধ্যাপক, ১৯৯৯ সালে সহযোগী অধ্যাপক এবং ২০০৪ সালে প্রফেসর হিসেবে যোগদান করেন।  ২০০১-২০০৪ সাল পর্যন্ত বিভাগীয় সভাপতির দায়িত্ব পালন করেন এবং ২০১২-২০১৪ সাল পর্যন্ত  থিওলজী এণ্ড ইসলামিক স্টাডিজ অনুষদের ডীন হিসাবে দায়িত্ব পালন করেন।

ড. সিদ্দীকী ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ে গবেষক হিসাবে কৃতিত্বের স্বাক্ষর রাখেন। ইতোমধ্যে তাঁর অধীনে ৪ জন থিসিস(মাস্টার্স), ১০ জন এম. ফিল. এবং ১২ জন পিএইচ. ডি. ডিগ্রী লাভ করেন। তন্মধ্যে ২০০৯ সালে ২০২তম সিন্ডিকেট সভায় একসাথে ৫ জন গবেষককে পিএইচ. ডি. ডিগ্রী প্রদান করে তিনি বাংলাদেশের বিশ্ববিদ্যালয়সমূহে রেকর্ড সৃষ্টি করেন। বর্তমানে তাঁর অধীনে ১০ জন পিএইচ. ডি. এবং ৩ জন এম. ফিল. গবেষক গবেষণারত আছেন।তিনি ইতোমধ্যে দেশে-বিদেশে চার শতাধিক পিএইচ. ডি./ অন্যান্য সেমিনারে প্রধান অতিথি/বিশেষ অতিথি/ প্রবন্ধকার/ আলোচক হিসাবে অংশগ্রহণ করেন এবং অর্ধশত এম. ফিল. ও পিএইচ, ডি, পরীক্ষা কমিটির আহবায়ক/সভাপতি/সদস্য হিসাবে দায়িত্ব পালন করেন।

বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরী কমিশনের আর্থিক সহযোগিতায় ৮টি প্রজেক্ট সম্পন্ন করেন। ২০০৫ সালে Bangladesh National Curriculam Board (NCTB)-এর নবম দশম শ্রেণীর ইসলামী শিক্ষা গ্রন্থের রচয়িতা। ইসলামিক ফাউন্ডেশন বাংলাদেশ থেকে প্রকাশিত “আরবী প্রবাদ সাহিত্য” (২য় সংস্করণ ২০০৫ সাল) তাঁর অন্যতম গবেষণা গ্রন্থ। তিনি আল-কুরআনের পূর্ণাঙ্গ অনুবাদও সমাপ্ত করেন। দেশী-বিদেশী ১০টি জার্নালে প্রায় শতাধিক এবং ইসলামিক ফাউন্ডেশন বাংলাদেশের ইসলামী বিশ্বকোষ, কুরআন বিশ্বকোষ, সীরাত বিশ্বকোষ, সমাজ বিজ্ঞান প্রকল্প এবং বাংলাপিডিয়ায় সমসংখ্যক গবেষণা প্রবন্ধ ও নিবন্ধ প্রকাশিত হয়েছে । তিনি অনুষদীয় গবেষণা জার্ণাল “THE ISLAMIC UNIVERSITY STUDIES”-এর সম্পাদনা করেন। বিভাগীয় গবেষণা জার্ণাল THE QURANIC STUDIES-এর প্রতিষ্ঠাতা সম্পাদক। এছাড়াও তিনি বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়/প্রতিষ্ঠানের ১৩ টি গবেষণা জার্ণালের সম্পাদনা পরিষদের সদস্য ও রিভিউয়ার।

তিনি একজন কলামিস্ট। দৈনিক, সাপ্তাহিক, পাক্ষিক, মাসিক পত্রিকা, স্মারক ও বিভিন্ন সংকলনে সমসাময়িক উচ্চ শিক্ষা সমস্যা বিষয়ক তার অনেক প্রবন্ধ ও নিবন্ধ এবং বিভিন্ন ভাষা হতে অনুদিত কবিতা ও গল্প প্রকাশিত হয়েছে। ড. সিদ্দীকী’র বর্তমানে প্রকাশিত বইয়ের সংখ্যা ১৩টি। আরও ১৬টি বইয়ের পান্ডুলিপি প্রস্তত রয়েছে বলে জানান তিনি।

0 0 vote
Article Rating
Subscribe
Notify of
guest
0 Comments
Inline Feedbacks
View all comments
কপিরাইট © ২০২০ | প্রেসবাংলাটুয়েন্টিফোরডটকম
0
Would love your thoughts, please comment.x
()
x