সেলিব্রিটি ট্রল বন্ধ করুন,দেশের সম্মান রক্ষা করুন!!

সেলিব্রিটি ট্রল বন্ধ করুন,দেশের সম্মান রক্ষা করুন!!

 

প্রেসবাংলা২৪.কম: সোনার বাংলা যেন প্রতিনিয়ত হাসির রাজ্যে রূপ নিচ্ছে। সময়ের পালাক্রমে বাংলাদেশ অনেকটা আজ বিশ্ব দরবারে মাথা উঁচু করে দাড়িয়েছে।যদিও সেটা এখনো পাকাপোক্ত হয়নি মোটেও। উনবিংশ শতাব্দীর  শেষে সোনার বাংলা গড়তে আমরা ব্যর্থ হয় নানামুখী রাজনৈতিক নেতাদের আক্রমণে।যার ফলশ্রুতিতে বিংশ শতাব্দীর শুরুতে দেশ গঠনে কোন রাজনৈতিক দল বিশেষ ভূমিকা রাখতে পারেনি।বর্তমান সময়ে  দেশে কিছু উল্লেখ যোগ্য পরিবর্তনের ছোঁয়াতে আজ আমরা সারাবিশ্বে আলোচিত।

 

বাংলাতে একটা প্রবাদ প্রচলিত আছে,নিন্দুকেরা সবসময় ভালো কাজের সমালোচনা করবে-এটা চিরন্তন সত্য।তবে বর্তমান সময়ে মনে হচ্ছে দেশে একটা কুচক্র মহল সমালোচনার চাদরে ঢুকে জনসাধারণের ভিড়ে নিন্দুকের চেয়ে বেশি উঠে পড়ে লেগেছে কিছু বিখ্যাত লোকদের সম্মান হানিতে। অবশ্যই সবার অধিকার রয়েছে সমালোচনা করার।যেহেতু আমরা স্বাধীন দেশের নাগরিক, সেহেতু সেখানে সবারই উচিত দেশকে নিয়ে উদ্বিগ্ন থাকার। নিঃসন্দেহে এটা দেশের কল্যাণের স্বার্থে মঙ্গলজনক কাজ।

 

সেক্ষেত্রে এটা ভাবা উচিত নয় যে,আমি দেশের  সূর্য সন্তানের সাফল্যের মময় অংশীদার হবো আর দুঃসময়ে তাদের ছুড়ে ফেলে দিবো। এটা কোনো নাগরিকের জন্য মোটেও সমীচীন নয়।বরং বলা চলে নির্বোধ বা বোকামি আর ছাড়া কিছু নয়।বর্তমান সমাজে কিছু লেবাসধারী ব্যক্তি রয়েছে যারা কোনো কিছু সম্পর্ক ভালো করে না জেনেই কথা বলা শুরু করে।যারফলে একজন সাধারণ মানুষ থেকে শুরু করে এমপি, মন্ত্রী, খেলোয়াড়, সমাজসেবক, চলচ্চিত্র ব্যক্তিত্ব কিংবা জনপ্রতিনিধি সহ রাষ্ট্রের সর্বোচ্চ পর্যায়ের ব্যক্তিরাও আজ তাদের কাছে ট্রলের শিকার হয়ে জনসম্মুখে হাসির খোরাক।

 

আমাদের সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে যার শুরুটা হয়,যার শেষটা কখনো কখনো ব্যক্তি পর্যায়ে চরম বিপর্যয় এবং ভয়ানক রূপে নিয়ে সমাপ্তি ঘটে।যার সর্বশেষ নজির বাংলাদেশের পোষ্টারবয় খ্যাত বিশ্বসেরা অলরাউন্ডার সাকিব আল হাসানকে নিয়ে। দেশের মাটিতে পা রাখার সাথে সাথে বিমানবন্দরে সাকিবকে একনজর দেখতে ভক্তদের ভিড় এবং সাথে রয়েছে নানা আয়োজন, যা সঙ্গে সঙ্গে ক্যামেরা বন্দি করতে ভুল করেন না সাংবাদিকেরা।তাদের মধ্যে কিছু লোক সমসময় সমালোচনার দ্বার উন্মোচিত করে বসে থাকে জনসাধারণের জন্য।পরের দিন আবারো সাকিব নিয়ে হেডলাইন হয়,স্বাস্থ্যব্যধি না মেনে সুপারশপ উদ্বোধন করেন সাকিব।আর গত রবিবারে যা ঘটেছে সাকিবকে নিয়ে সেটা কারো না জানা নয়।কেন এমনটা ঘটবে বারবার এদেশে,আমরা কি কখনো আমাদের হীনমন্যতা দূর করে দেশে শান্তির প্রদীপ জ্বালাতে পারব না।সবাই যদি দেশের জন্য কাজ করেন তাহলে সেটা অবশ্যই মন থেকে করুন।

 

হ্যাঁ,তবে কেউ যদি আমার ইসলাম ধর্ম এবং  রাসূলকে নিয়ে কথা বলে সেই রাষ্ট্রের যত ক্ষমতাবান ব্যক্তি কিংবা কিংবদন্তি হোক না কেন,তাকে বিন্দু পরিমাণ ছাড় দেওয়া যাবে না। সে সাথে যারাই দেশের মা, মাটি, স্বাধীনতা এবং দেশের সম্মান হানিতে এইটুকু আঘাত করবে, তাকেও আমরা এদেশের মাটিতে স্থান দিবো না ইনশাল্লাহ।

লিখেছেনঃ 
মাহির আমির মিলন
শিক্ষার্থী জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়। 

Leave a Reply

Your email address will not be published.

WP2Social Auto Publish Powered By : XYZScripts.com