মোবাইলে প্রেম তারপর প্রতারণা করে রাতভর গণধর্ষণ

নড়াইল সংবাদদাতা, প্রেসবাংলা২৪ডটকম: নড়াইলে বিয়ের প্রলোভনে পড়ে এক স্কুল ছাত্রীকে  গণধর্ষণের শিকার হতে হয়েছে। বুধবার (৫জুন) সারারাত নড়াইলের দিঘলিয়া গ্রামের নূরু বিশ্বাসের বাড়িতে এ ঘটনা ঘটে।

নড়াইল সদর হাসপাতালে ধর্ষিতার ডাক্তারী পরীক্ষা সম্পন্ন হয়েছে। এ ঘটনায় ধর্ষিতার মা বাদী হয়ে থানায় মামলা করেন। পুলিশ এখন পর্যন্ত ধর্ষককে আটক করতে পারেনি।

আমাদের নড়াইল জেলা প্রতিনিধি জানান, পুলিশ সূত্রে জানা যায়, খুলনা জেলার দৌলতপুর উপজেলার কার্তিককুল গ্রামের মেয়ে ও কার্তিককুল সালেহা মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের ৮ম শ্রেণির এক ছাত্রীর (১৫) সঙ্গে মাদারীপুর জেলার রাজৈর গ্রাম ও উপজেলার মো.তোতা মিয়া বিশ্বাসের বখাটে ছেলে রাজিব বিশ্বাসের (২৭) মধ্যে মোবাইল ফোনের মাধ্যমে একবছর ধরে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে। সম্পর্কের জের ধরে ঈদেরদিন বুধবার (৫জুন) ধর্ষক রাজিব বিশ্বাস ফোনের মাধ্যমে ধর্ষিতাকে নড়াইলের দিঘলিয়ায় বেড়াতে আসতে বলে। যথারীতি সে দিঘলিয়া এসে বিভিন্ন  স্থানে ঘোরাফেরা শেষে ধর্ষক রাজিব ও অজ্ঞাতনামা এক সহযোগি মিলে দিঘলিয়া গ্রামের পাচু বিশ্বাসের ছেলে নূরু বিশ্বাসের বাড়িতে নিয়ে রাতভর গণধর্ষণ করে। ধর্ষিতা বাড়ি ফিরে ধর্ষণের ঘটনা তার পরিবারকে জানায়। তখন ধর্ষিতার মা ফাতেমা বেগম শুক্রবার (৭জুন) বাদী হয়ে ধর্ষক রাজিবসহ অজ্ঞাত এক সহযোগির নামে নড়াইলের লোহাগড়া থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে মামলা দায়ের করেন।

মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা নড়াইলের লোহাগড়া থানার এসআই সাইফুল ইসলাম বলেন, শনিবার (৮জুন) সকালে নড়াইল সদর হাসপাতালে ধর্ষিতার ডাক্তারী পরীক্ষা এবং বিকালে নড়াইলের সিনিয়র জুড়িশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে ধর্ষিতা জবানবন্দী প্রদান করে।

নড়াইলের লোহাগড়া থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মো.মোকাররম হোসেন বিষয়টি নিশ্চিত করে, আমাদের নড়াইল সংবাদদাতাকে জানান, ‘যথাযথ আইনী প্রক্রিয়ার মাধ্যমে মামলার তদন্ত কাজ এগিয়ে চলেছে। আসামীদের গ্রেফতার করার অভিযান অব্যাহত আছে।’

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

WP2Social Auto Publish Powered By : XYZScripts.com